‘আরব আমিরাত ফিলিস্তিনি জাতির পিঠে ছুরি বসিয়েছে’

‘আরব আমিরাত ফিলিস্তিনি জাতির পিঠে ছুরি বসিয়েছে’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচেষ্টার ফলশ্রুতিতে গতকাল বৃহস্পতিবার ইসরাইলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে সম্মত হয় সংযুক্ত আরব আমিরাত। শিগগিরই আরব আমিরাত ও ইসরাইলি কর্মকর্তারা হোয়াইট হাউজে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপস্থিতিতে সংক্রান্ত আনুষ্ঠানিক চুক্তিতে সই করবেন বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

এ ঘোষণা শুনেই ক্ষোভে ফেটে পড়েছে ফিলিস্তিনিরা। তারা আরব আমিরাতের এমন সিদ্ধান্ত দৃঢ়ভাবে প্রত্যাক্ষান করেছেন।

বৃহস্পতিবার এই ঘোষণা এলে ফিলিস্তিনি নেতৃত্ব ও জনসাধারণ উভয়েই আশ্চর্য হয়ে পড়ে

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের (পিএ) সামাজিক বিষয়ক মন্ত্রী আহমেদ মাজদালানী বলেন, এই চুক্তির ব্যাপারে আমাদের কোনো ধারণা ছিল না।

ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের সাবেক মন্ত্রী মুনিব আল-মাসরি আবু ধাবির শাসক শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের কথা উল্লেখ করে বলেন, তিনি ২০০৪ সালে মৃত্যুর আগে ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে আবু ধাবিতে রাজত্ব করেছিলেন। তিনি বরাবরই ফিলিস্তিনিদের পক্ষে শক্ত সমর্থন জুগিয়েছিলেন।

তিনি বলেন, আমার প্রিয় ভাই প্রয়াত শায়েখ যায়েদ সম্পর্কে আমি জানি, ফিলিস্তিনের সমর্থক হিসেবে তিনি সব সময়ই গর্বিত ছিলেন। আরব আমিরাত নিজেদের স্বার্থের জন্য ফিলিস্তিনকে বিক্রি করে দিবে আমি আমার জীবদ্দশায় এমন দেখার কথা ভাবতেও পারিনি। এটা খুবই লজ্জাজনক। এটা এখনো আমার কাছে বিশ্বাসযোগ্য নয়।

এদিকে সংযুক্ত আরব আমিরাত ফিলিস্তিনি জাতির সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার ঘোষণা দেয়ার পর ফিলিস্তিনের সকল সংগঠন পৃথক পৃথক বিবৃতি দিয়েছে। এ ব্যাপারে তাদের কঠোর প্রতিবাদের কথা জানিয়েছে। তারা একে “পিছন দিয়ে ছুরিকাঘাত” বলে আখ্যায়িত করেছেন।

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের মুখপাত্র হাজেম কাসেম বলেছেন, এই সমঝোতা ফিলিস্তিনি জাতির স্বার্থ রক্ষা করবে না।

তিনি আরো বলেন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ইহুদিবাদী ইসরাইলের দখলদারিত্ব ও ফিলিস্তিনবিরোধী অপরাধযজ্ঞের ‘প্রতিদান’ হিসেবে তেল আবিবের সঙ্গে এই সমঝোতায় পৌঁছেছে বলে তিনি কটাক্ষ করেন।

হামাসের আরেক মুখপাত্র ফাউজি বারহুম বলেছেন, তেল আবিবের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার সিদ্ধান্ত নিয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাত ফিলিস্তিনি জাতির পিঠে ছুরি বসিয়েছে। এই সিদ্ধান্ত শুধুমাত্র ইসরাইলের স্বার্থ রক্ষা করবে বলেও তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

এদিকে ফিলিস্তিনের ইসলামি জিহাদ আন্দোলন বলেছে, এই সমঝোতার মাধ্যমে ইসরাইলের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে নেতানিয়াহুর মন্ত্রিসভাকে পতনের হাত থেকে রক্ষা করা হয়েছে। জিহাদ আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা দাউদ শিহাব এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, আরব আমিরাত এ সিদ্ধান্ত নিয়ে ইসরাইলের মোকাবিলায় নতজানু নীতি গ্রহণ করেছে এবং এর ফলে তেল আবিবের ফিলিস্তিন বিদ্বেষী তৎপরতা আরো জোরদার হবে। আল জাজিরা ও পার্সটুডে

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 doinikprovateralo.Com
Desing & Developed BY Md Mahfuzar Rahman