আশুলিয়ায় ১০ হাজার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

আশুলিয়ায় ১০ হাজার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পানী লিমিটেডের অভিযানে আশুলিয়ায় ৫ দিনে ১০ হাজার পরিবারের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে একজনকে। ইউপি সদস্যসহ ৩৬ জনের নামে মামলা করা হয়েছে।

আটককৃত ফজলুল করিম (৩০) মদিনা ফুড প্রডাক্টের মালিক। শনিবার তাকে আদালতে হাজির করা হয়।

অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেয়া এবং ব্যবহারের অপরাধে সাভার তিতাস গ্যাসের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী আবু সাদাত মোঃ সায়েম বাদী হয়ে ইয়ারপুর ইউনিয়নের তিন সদস্যসহ ৩৬ জনের বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানার মামলা নং ৩১ রুজু করা হয়েছে। ইউপি সদস্যরা হলেন, বকুল হোসেন সরকার, মোহাম্মদ আলী মেম্বার ও আক্কাস মেম্বার।

মামলার অন্যান্য আসামিরা হলেন, জাভেদ আলী, দলিল মিয়া, সফিউল্লাহ ব্যাপারী, আব্দুস সাত্তার খান, মজিব উল্লাহ, সহিদুল ইসলাম, অহিদুল ইসলাম, সোহেল ভূঁইয়া, সদর আলী ভূঁইয়া, হালিম, আমিনুল ইসলাম, মূর্তজা, খান নজিবুল্লাহ, ইউসুফ দেওয়ান, ফাহিম দেওয়ান, জামাল দেওয়ান, মতিয়ার, জসিম উদ্দিন দেওয়ান, মোহাম্মদ আলী মেম্বার, মোমিন, আপিল খান, জুয়েল ব্যাপারী, বাসের মাদবর, কুদ্দুস মাদবর, জামান মাদবর, আব্দুল হাই, মারজাহান বেগম, সোহরাব, হায়াত আলী, মোতালেব, মুহির, আক্কাস মেম্বার, সফিকুল ইসলাম সরকার, সিরাজুল ইসলাম ওরফে গ্যাস সিরাজ, বকুল মেম্বার।

এর আগে ৬ ফেব্রুয়ারি, বৃহস্পতিবার রাতে আশুলিয়ার ইয়ারপুর ইউপি’র নরসিংহপুর, দেওয়ানবাগ, ফুলবাগান, জিরাবো, ঘোষবাগ, তৈয়বপুর, মাদবরবাড়ী, টঙ্গাবাড়ি, বাংলাবাজার, গোমাইলসহ আশপাশের এলাকার প্রায় ১০ কিলোমিটার এলাকার অবৈধ গ্যাস সংযোগ দেয়া এবং ব্যবহারের অপরাধে এ মামলাটি দায়ের করা হয়। ওই দিনই মদিনা ফুড প্রডাক্টের মালিক ফজলুল করিমকে আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে সাভার তিতাস গ্যাস কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী আবু সাদাৎ মো. সায়েম বলেন, ইতোপূর্বে উল্লেখিত এলাকায় মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলার ১নং আসামী ফজলুল করিমকে আমরা হাতে-নাতে ধরতে সক্ষম হই। এলাকায় যে সকল বাসা বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে এদের মধ্যে যারা নেতৃত্ব দিয়ে এ অবৈধ সংযোগ দিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন প্রথমত এলাকার লোকদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে এদেরকে মামলার আসামি করা হয়েছে। যতক্ষণ পর্যন্ত অবৈধ ১ ফুট পাইপের সংযোগ থাকবে ততক্ষণ পর্যন্ত এ অভিযান চলবে। অবৈধ সংযোগ প্রদানকারীদের বিরুদ্ধে পুলিশের সহায়তায় প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে তিতাস বদ্ধ পরিকর।


Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 doinikprovateralo.Com
Desing & Developed BY Md Mahfuzar Rahman