ইসরায়েলি বসতির সঙ্গে জড়িত ১১২ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ

ইসরায়েলি বসতির সঙ্গে জড়িত ১১২ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ

ইসরায়েলি বসতির সঙ্গে জড়িত ১১২ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের তালিকা প্রকাশ জাতিসংঘের পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বসতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি তালিকা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। এই কোম্পানিগুলো সেখানে ব্যবসায়িক সম্পর্ক জারি রেখেছে বলে অভিযোগ এনেছে সংস্থাটি। ওই তালিকায় এয়ারবিএনবি, বুকিং ডট কম ও মটোরোলা গ্রুপ সহ ১১২টি প্রতিষ্ঠানের নাম রয়েছে। বুধবার তালিকা প্রকাশের পূর্বে দেয়া এক বিবৃতিতে জাতিসংঘ বলে, এসব কোম্পানির সঙ্গে ওই বসতির সম্পর্ক রয়েছে। যৌক্তিক ভিত্তি থেকেই জাতিসংঘ এই সিদ্ধান্তে উপনিত হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে ওই বিবৃতিতে। এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা।

খবরে বলা হয়৬, তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর বেশিরভাগই যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক। এছাড়া রয়েছে ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, লুক্সেমবার্গ, থাইল্যান্ড ও বৃটেনের প্রতিষ্ঠানও। প্রতিবেদনে জাতিসংঘ বলেছে, পশ্চিম তীরে প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যক্রম এ অঞ্চলের মানবাধিকার পরিস্থিতির জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বুধবার প্রকাশিত এ তালিকাকে বিজয় হিসেবে অ্যাখ্যায়িত করেছে ফিলিস্তিনিরা। অন্যদিকে ইসরায়েলিরা একে বলছে লজ্জাজনক।

উল্লেখ্য, ১৯৬৭ সালে ইসরায়েল আক্রমণ করে আরব রাষ্ট্রগুলো। কিন্তু ইসরায়েলের কাছে শোচনীয় পরাজয় হয় আরবদের। ফলশ্রুতিতে পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেম দখল করে নেয় ইসরায়েল। এরপর থেকে সেখানে এখন পর্যন্ত গড়ে ওঠে ১৪০টির মতো বসতি। এতে প্রায় ৬ লাখ ইহুদি বসবাস করছেন। এ বসতিগুলো আন্তর্জাতিক আইনে ‘অবৈধ’ হিসেবে বিবেচিত হয়ে এলেও ইসরায়েল সবসময় তা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে আসছে।

ইহুদি বসতিগুলো পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমকে নিয়ে তাদের ভবিষ্যৎ স্বাধীন রাষ্ট্রকে বাস্তবে রূপ দেয়ার ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াবে জানিয়ে ফিলিস্তিনিরা দীর্ঘদিন ধরেই বসতিগুলোর উচ্ছেদ চাইছে। তাদের সহযোগিতা করছে জাতিসংঘ। ২০১৬ সালে জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদ বসতিগুলোতে নির্দিষ্ট কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি তালিকা বানাতে ও এইচসিএইচআরকে দায়িত্ব দেয়। যেসব কর্মকাণ্ডের ওপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠানগুলোর তালিকা করতে বলা হয়েছিল, তার মধ্যে আছে- পশ্চিম তীরে ইসরায়েলের কাঁটাতার ও বসতির বিস্তৃতিতে প্রয়োজনীয় উপকরণ ও যন্ত্রপাতি সরবরাহ, সেখানে থাকা বাড়িঘর ও স্থাপনা, কৃষিজমি, গ্রিনহাউস, জলপাইয়ের বাগান ও শস্য ধ্বংসে প্রয়োজনীয় উপকরণ ও যন্ত্রপাতি সরবরাহ, বসতিগুলো টিকিয়ে রাখতে ও এর দেখভালের জন্য যাতায়াতসহ বিভিন্ন সেবা ও পরিষেবা নিশ্চিত করা, বসতিগুলোর আধুনিকায়ন, ব্যবস্থাপনা ও  বিস্তৃতির ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখে এমন ব্যাংকিং ও বিভিন্ন আর্থিক কর্মকাণ্ড, যেমন গৃহ নির্মাণ ও ব্যবসার জন্য ঋণ দেয়া।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 doinikprovateralo.Com
Desing & Developed BY Md Mahfuzar Rahman