করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫০ শনাক্ত ২,৮৫৬

করোনায় ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৫০ শনাক্ত ২,৮৫৬

দেশে করোনাভাইরাসে আরো ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। সেই সাথে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ৮৫৬ জন।

নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

করোনায় দেশে এখন মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৮০১ জন। আর মোট শনাক্ত হয়েছেন ২ লাখ ১৬ হাজার ১১০ জন।

নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১২ হাজার ৯২টি এবং পরীক্ষা করা হয়েছে আগের নমুনাসহ ১২ হাজার ৩৯৮টি। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ১০ লাখ ৭৯ হাজার ৭টি। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২৩ দশমিক ০৪ শতাংশ। আর মোট পরীক্ষার ক্ষেত্রে শনাক্ত হয়েছেন ২০ দশমিক ০৩ শতাংশ।

নতুন করে মারা যাওয়া ৫০ জনের মধ্যে ৪১ জন পুরুষ এবং ৯ জন নারী। মোট শনাক্তের ক্ষেত্রে মৃত্যু হার এখন পর্যন্ত ১ দশমিক ৩০ শতাংশ।

করোনাভাইরাস থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরো ২ হাজার ৬ জন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ১৯ হাজার ২০৮ জন। সুস্থতার হার ৫৫ দশমিক ১৬ শতাংশ।


ভ্যাকসিনের জন্য ফাইজার ও বায়োএনটেকের সঙ্গে ২ শ’ কোটি ডলারের চুক্তি
কোভিড-১৯ ঠেকাতে আগামী বছরের শুরুতে আমেরিকানদেও দেহে পরীক্ষামূলকভাবে ১০০ মিলিয়ন ডোজ ভ্যাকসিন প্রয়োগের জন্য যুক্তরাষ্ট্র মঙ্গলবার তাদের বৃহৎ কোম্পানী ফাইজার এবং জার্মানির বায়োএনটেকের সঙ্গে ১৯৫ কোটি ডলারের চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে।
ভ্যাকসিন উৎপাদন জোরদার, থেরাপি ও টেস্টের উন্নয়নে চলমান কার্যক্রমে এটি একটি বিরাট বিনিয়োগের চুক্তি।

ফাইজার এবং বায়োএনটেক একত্রে ওষুধ উদ্ভাবন করছে উল্লেখ করে এক বিবৃতিতে বলা হয়, ট্রাম্প প্রশাসনের অঙ্গীকার অনুযায়ী আমেরিকার জনগণ বিনামূল্যে ভবিষ্যৎ ভ্যাকসিন নিতে পারবে।
চুক্তি অনুযায়ী ভ্যাকসিনটি নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষের অনুমোদন পেলে যুক্তরাষ্ট্র প্রাথমিকভাবে ১০ কোটি ডোজ পাবে। চুক্তিতে দু’টি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বাড়তি ৫০ কোটি ডোজ কেনার সুযোগ রয়েছে।

ভ্যাকসিন উদ্ভাবনে সম্মুখ সারিতে থাকা বায়োএনটেক ও ফাইজার চলতি মাসের শেষ দিকে স্বাস্থ্যবান ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের মাঝে ভ্যাকসিনটি ট্রায়েলের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় রয়েছে।
তারা আশা করছে সমীক্ষা সফল হলে যথাসম্ভব চলতি বছরের অক্টোবরে তারা কর্তপক্ষের কাছ থেকে কিছু জরুরি অনুমোদন পাবেন।

বিশ্বে বর্তমানে ২ শ’রও বেশি ভ্যাকসিন উদ্ভাবনের কাজ বিভিন্ন পর্যায়ে অগ্রসর হচ্ছে,এদের মধ্যে প্রায় দুই ডজন ক্লিনিক্যাল পর্যায়ে মানব দেহে ট্রায়েলের অবস্থায় রয়েছে।
চলতি মাসের শুরুতে যুক্তরাষ্ট্র নোভাভাক্স’র সঙ্গে ১০ কোটি ডোজ পেতে ১৬০ কোটি ডলারের চুক্তি করেছে।
এর আগে মে মাসে অষ্ট্রাজেনিকার ভ্যাকসিন পেতে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির সঙ্গে ১২০ বিলিয়ন ডলারের চুক্তি করেছে।

এ ছাড়াও যুক্তরাষ্ট্র জনসন এন্ড জনসন’র ভ্যাকসিনের জন্য ৪৫ কোটি ৬০ লাখ ডলার এবং মডেরনার সঙ্গে ৪৮ কোটি ৬০ লাখ ডলার ও ইমার্জেন্ট বায়োসলিউশনের সঙ্গে ৬২ কোটি ৮০ লাখ ডলারের চুক্তি করেছে।


Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 doinikprovateralo.Com
Desing & Developed BY Md Mahfuzar Rahman