করোনায় দেশে শনাক্ত ও মৃত্যু কমেছে

করোনায় দেশে শনাক্ত ও মৃত্যু কমেছে

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দৈনিক শনাক্তের হার ও মৃতের সংখ্যা কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ১৫ জনের মৃত্যু এবং শনাক্ত হয়েছেন নতুন ১৪৬৯ জন। এ নিয়ে এ পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা ৬০৩৬ জন এবং আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৪ লাখ ১৭ হাজার ৪৭৫ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হওয়া ১৪৩৯ জনসহ এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৩৫ হাজার ২৭ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩ হাজার ৫২১টিসহ এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৪ লাখ ১৮ হাজার ৪২৩টি। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৮৬ শতাংশ। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮০ দশমিক ২৫ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৫ শতাংশ।

শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডাঃ নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ১৫ জনের ১১ জন পুরুষ এবং ৪ জন নারী। বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, তাদের মধ্যে ৬০ বছরের বেশি বয়সী ৫ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৪ ও ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ১ জন রয়েছেন। বিভাগ বিশ্লেষণে দেখা যায়, ঢাকা বিভাগে ৮ জন, চট্টগ্রামে ৫ জন, রংপুরে ১ জন ও ময়মনসিংহে ১ জন রয়েছেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য অধিদফতর আরও জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ১৮১ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১২ হাজার ১১৪ জন। আইসোলেশন থেকে ২৪ ঘণ্টায় ১৪৬ জন এবং এখন পর্যন্ত ৭৪ হাজার ৯৬৫ জন ছাড় পেয়েছেন। এখন পর্যন্ত আইসোলেশন করা হয়েছে ৮৭ হাজার ৭৯ জনকে। প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টাইন মিলে ২৪ ঘণ্টায় কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে ১০৪৮ জন। কোয়ারেন্টাইন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ৭০৮ জন এবং এখন পর্যন্ত ৫ লাখ ১৯ হাজার ২৭১ জন ছাড় পেয়েছেন। এখন পর্যন্ত কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে ৫ লাখ ৫৯ হাজার ২৮১ জনকে। বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৩০ হাজার ১০ জন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ৬ নবেম্বর পর্যন্ত করোনায় মোট মৃতের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ৩১৫৪ জন, যা মোট মৃতের ৫২ দশমিক ২৫ শতাংশ, চট্টগ্রাম বিভাগে ১১৯৪ জন, যা মোট মৃতের ১৯ দশমিক ৭৮ শতাংশ, রাজশাহী বিভাগে ৩৭৩ জন, যা মোট মৃতের ৬ দশমিক ১৮ শতাংশ, খুলনা বিভাগে ৪৭৩ জন, যা মোট মৃতের ৭ দশমিক ৮৪ শতাংশ, বরিশাল বিভাগে ২০১ জন, যা মোট মৃতের ৩ দশমিক ৩৩ শতাংশ, সিলেট বিভাগে ২৫০ জন, যা মোট মৃতের ৪ দশমিক ১৪ জন, রংপুর বিভাগে ২৬৫ জন, যা মোট মৃতের ৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ১২৬ জন, যা মোট মৃতের ২ শতাংশ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, ৬ নবেম্বর পর্যন্ত করোনায় যারা মারা গেছেন, তাদের বয়স বিশ্লেষণে, শূন্য থেকে ১০ বছরের মধ্যে ২৯ জন, যা মোট মৃত্যুর শূন্য ৪৮ শতাংশ, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ৪৭ জন, যা শূন্য ৭৮ শতাংশ, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ১৩৮ জন, যা ২ দশমিক ২৯ শতাংশ, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ৩৩০ জন, যা ৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৭৫১ জন, যা ১২ দশমিক ৪৪ শতাংশ, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৫৯০ জন, যা ২৬ দশমিক ৩৪ শতাংশ এবং ৬০ বছরের বেশি বয়সী ৩১৫১ জন, যা ৫২ দশমিক ২০ শতাংশ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, সারাদেশে করোনা রোগীদের জন্য সাধারণ শয্যা সংখ্যা ১১ হাজার ৬০৮টি, সাধারণ শয্যায় ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২৪২০ জন এবং খালি রয়েছে ৯১৮৮টি শয্যা। দেশে মোট আইসিইউ শয্যা রয়েছে ৫৬৪টি, ভর্তিকৃত রোগী ২৭৩ জন এবং খালি রয়েছে ২৭১টি আইসিইউ শয্যা। দেশে মোট অক্সিজেন সিলিন্ডার রয়েছে ১৩ হাজার ৯৫টি, হাই-ফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলা রয়েছে ৫৭৪টি এবং অক্সিজেন কনসেনট্রেটর রয়েছে ৩৬৩টি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগে ৯৬৫ জন, চট্টগ্রামে ৩৪১ জন, রাজশাহীতে ১৮ জন, খুলনায় ১৩ জন, রংপুরে ১৮ জন, বরিশালে ৩১ জন, ময়মনসিংহে ২ জন ও সিলেটে ৫১ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়েছেন। আর গত ২৪ ঘণ্টায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের হটলাইন নম্বরসমূহের মধ্যে স্বাস্থ্য বাতায়নের নম্বরে ৪৫৯৬টি ও আইইডিসিআর’র নম্বরে ২২১টি কল এসেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসমূহে ৪৪৩৭ জন, স্থলবন্দরসমূহে ৫৬৮ জন এবং সমুদ্রবন্দরসমূহে ৩১১ জনকে স্ক্রিনিং করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 doinikprovateralo.Com
Desing & Developed BY Md Mahfuzar Rahman