বসছে পদ্মা সেতুর ৩১ তম স্প্যান, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথ বন্ধ

বসছে পদ্মা সেতুর ৩১ তম স্প্যান, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথ বন্ধ

বসছে পদ্মা সেতুর ৩১ তম স্প্যান, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌপথ বন্ধ ৩০ তম স্প্যান স্থাপনের ১০ দিন পর বুধবার বসছে পদ্মা সেতুর ৩১তম স্প্যান। পিলারে স্প্যান বসানোর নদীপথ সরু থাকায় বুধবার শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী চ্যানেল দিয়ে ফেরি, লঞ্চ, স্পিডবোট, ইঞ্জিনচালিত নৌকাসহ সব ধরণের জলযান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ থাকবে।
সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, স্প্যান বসানোর সুবিধার্থে বুধবার বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত এই রুটে চলাচলরত সব ধরণের নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে। সড়ক পরিবহণ ও সেতু বিভাগ বুধবার ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক পথে চলাচলরত দক্ষিণাঞ্চলের যাত্রীদের শিমুলিয়া ফেরিঘাটের পরিবর্তে বিকল্প পথে চলাচলের পরামর্শ দিয়েছেন। বুধবার শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌ-চ্যানেলের মাঝ বরাবর পদ্মাসেতুর ৩১তম স্প্যান স্থাপন করা হবে। এই পথে ফেরি, লঞ্চ ও স্পিডবোটসহ সব ধরণের নৌযান চলাচল পুরোপুরি বন্ধ রাখতে হচ্ছে। যাত্রীদের ভোগান্তি এড়াতে এই পথের যাত্রীদের বিকল্প পথ হিসেবে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথ ব্যবহারের পরামর্শ দেয়া হয়েছে। মহাসড়ক ও জলপথ ব্যবহারকারীদের সাময়িক অসুবিধার জন্য সেতু বিভাগ দুঃখ প্রকাশ করেছেন।এদিকে, আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে ২৫ ও ২৬ নম্বর খুঁটিতে বুধবার বসানো হবে পদ্মা সেতুর ৩১তম স্প্যানটি। এই স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে সেতুর ৪ হাজার ৬৫০ মিটার অবকাঠামো দৃশ্যমান হবে।

এরআগে গত ৩০ মে ৩০ তম স্প্যান বসানোর মাধ্যমে সেতুর ৪ হাজার ৫শ’ মিটার অবকাঠামো দৃশ্যমান হয়েছে। এই স্প্যানটি বৃহস্পতিবার বসানোর কথা থাকলেও বৈরি আবহাওয়ার আশঙ্কায় একদিন এগিয়ে বুধবার বসানোর সিদ্ধান্ত নেয় সেতু কর্তৃপক্ষ।
পদ্মা সেতু প্রকল্পের এক প্রকৌশলী জানিয়েছেন, ৩১ তম স্প্যান বসলে জাজিরার অংশে আর কোন স্প্যান বসানো বাকি থাকবে না। স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে সেতুটি সরাসরি জাজিরা প্রান্ত থেকে মাওয়ার অংশ স্পর্শ করবে। আর মুন্সীগঞ্জের মাওয়া অংশে স্প্যান বসানো বাকি থাকছে ১০টি। সেগুলো বসানো সম্পন্ন হলে সেতুর পূর্ণ অংশ ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান হবে। এদিকে, সেতুতে ৪০ টি পিলারের ওপর ৪১ টি স্প্যান স্থাপন করা হবে। পদ্মা সেতুর ২০টি স্প্যান শরীয়তপুর, ১ টি মাদারীপুর এবং অপর ২০ টি স্প্যান মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া প্রান্তে পড়েছে। নদীতে সেতুটি ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার লম্বা হলেও দুইপাড়ে সংযোগ সড়কের সঙ্গে যুক্ত অংশ মিলিয়ে সেতুটি প্রায় সাড়ে ৯ কিলোমিটার। এখন পর্যন্ত সেতুর সার্বিক অগ্রগতি ৮৯ শতাংশ। অন্যদিকে, সরকারি ঘোষণা অনুসারে ২০২১ সালের জুন নাগাদ শেষ হবে পদ্মাসেতুর কাজ। তবে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে কাজের গতি কিছুটা কমেছে। এ কারণে আরও অন্তত ৬ মাস সময় বেশি লাগতে পারে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। সে হিসেবে ২০২১ সালের ডিসেম্বরে পদ্মাসেতুর কাজ শেষ হওয়ার কথা।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 doinikprovateralo.Com
Desing & Developed BY Md Mahfuzar Rahman