বাংলাদেশি অভিবাসী নিয়ে ভূমধ্যসাগরে ভাসছে ওশান ভাইকিং

বাংলাদেশি অভিবাসী নিয়ে ভূমধ্যসাগরে ভাসছে ওশান ভাইকিং

জাহাজ ওশান ভাইকিং। ছবি: সংগৃহীত

গত সপ্তাহে বেশ কয়েকটি অভিযানে প্রায় ৪৬০ অভিবাসীকে ভূমধ্যসাগর থেকে উদ্ধার করেছে ওশান ভাইকিং জাহাজ। কিন্তু এখনো ইউরোপের কোনো বন্দরে নোঙ্গরের অনুমতি না পাওয়ায় সমুদ্রেই ভাসছে জাহাজটি। অভিবাসীদের মধ্যে বেশিরভাগ বাংলাদেশি ও মিশরীয় নাগরিক।

ওশান ভাইকিং পরিচালনাকারী সংস্থা এসওএস মেডিটেরানি জানিয়েছে, জরুরি ভিত্তিতে অভিবাসীদের নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন। জাহাজে থাকা রেবেকা নামের একজন নার্স জানিয়েছেন, চার জনের স্বাস্থ্যকর্মীর দল অভিবাসীদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। যাত্রীদের মধ্যে চর্মরোগসহ নানা সংক্রামক রোগ ছড়িয়ে পড়ছে। তবে ইটালির উপকূলরক্ষী বাহিনী দুইজন গর্ভবতী নারী ও শিশুসহ ছয়জনকে জাহাজটি থেকে সরিয়ে নিয়েছে।

ওশান ভাইকিং গত বুধবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, অভিবাসীরা বিভিন্ন রকমের শারীরিক ও মানসিক সমস্যায় ভুগছেন। এর মধ্যে রয়েছে অবসাদগ্রস্ততা, পানি শূন্যতা, ব্যথা এবং নানা ধরনের সংক্রমণ। ইউরোপীয় মানবিক সহায়তাকারী সংস্থাটি জাহাজটি নোঙ্গরের জন্য মাল্টা ও ইটালির কাছে আবেদন করলেও এখন পর্যন্ত কোনো সাড়া পায়নি বলে জানিয়েছে।
এই অভিবাসীদের জাহাজটি গত বৃহস্পতিবার থেকে শনিবারের পর্যন্ত ভূমধ্যসাগর থেকে উদ্ধার করেছে। এসওএস মেডিটেরানির মুখপাত্র লরেন্স বন্ডার্ড জানিয়েছে, জাহাজটি একটি সাময়িক আশ্রয় মাত্র। দমবন্ধ করা গরমে উদ্ধারকৃতদের ডেকে থাকা চরম কঠিন হয়ে পড়েছে।

সংস্থাটির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, উদ্ধারকৃত ৪৬০ অভিবাসীর বেশিরভাগ বাংলাদেশি ও মিশরীয়। তাদের ২০ জন নারী ও ৮০ অপ্রাপ্তবয়স্ক রয়েছেন।অপ্রাপ্তবয়স্কদের সবাই অভিভাবকহীন বলেও জানিয়েছে তারা। অভিবাসীদের বহনকারী একটি নৌকা ছাড়া বাকি সবগুলোই লিবিয়া থেকে যাত্রা করেছে। উদ্ধারকৃতরা তিনদিন পর্যন্ত সমুদ্রে ভাসছিলেন।

শুধু ওশান ভাইকিং নয়, উদ্ধার করা অভিবাসীদের নিয়ে এখন সমুদ্রে আরও দুইটি জাহাজ রয়েছে। এর একটি মানবিক সহায়তাকারী সংস্থা ডক্টর্স উইদাউট বর্ডার্সের জাহাজ জিও ব্যারেন্টস। গত শুক্রবার তারা ১১ জনকে উদ্ধার করে।

জার্মান সংস্থা রেস্কশিপের জাহাজ নাদিরও ৬০ জন অভিবাসীকে নোঙ্গরের অনুমতি পাওয়ার অপেক্ষায় আছে। এক টুইটে সংস্থাটি জানিয়েছে, এতো অভিবাসীকে সেবা দেওয়ার মতো ব্যবস্থা তাদের জাহাজে নেই। এই অভিবাসীদের তারা গত শুক্রবার উদ্ধার করেছে বলে জানিয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2019 doinikprovateralo.Com
Desing & Developed BY Md Mahfuzar Rahman